অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবলে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে জিতে উড়ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এক ঝটকায় আজ বাংলাদেশকে মাটিতে নামিয়ে এনেছে নেপাল। পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জে
প্রথম ম্যাচে ভুটানের বিপক্ষে ৫-২ গোলে জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৭-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। তাই অনেকেই ধরে নিয়েছিল আজও আয়েশি জয় পেতে যাচ্ছে বাংলার কিশোরেরা। কিন্তু কিসের কী! জয় তো দূরের কথা, গোর্খাদের সামনে একেবারে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে আনোয়ার পারভেজের শিষ্যরা।

প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে পিছিয়ে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধে বাকি ২টি গোল। বাংলাদেশ ৭৯ মিনিটে ব্যবধান ২-১ করলেও পরে আরও দুই গোল হজম করে। এ ম্যাচে বাংলাদেশের একমাত্র গোলটি করেছে বদলি খেলোয়াড় বাদশা মিয়া। ডান দিক দিয়ে এক ডিফেন্ডার ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে না পারলে বল যায় বাদশার সামনে। বাদশার ডান পায়ের শটে ২-১। এরপর সমতায় ফেরা তো সম্ভব হয়–ইনি, উল্টো ২ গোল হজম। এই হারে বাংলাদেশের জন্য ফাইনালে ওঠার পথ কঠিন হয়ে গেল।

পরশু শেষ ম্যাচে জিততেই হবে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে। কিন্তু ভারত অনেক শক্তিশালী। এই টুর্নামেন্টে প্রথম ম্যাচে তারা নেপালকে গুঁড়িয়ে দিয়েছে ৫-০ গোলে। ৩ ম্যাচে নেপাল ও বাংলাদেশের পয়েন্ট সমান ৬। ভারতের ৯। পরশু ভুটানকে হারালে নেপালের পয়েন্ট হবে ৯। বাংলাদেশ ভারতকে হারালে সমান ৯ হবে। সে ক্ষেত্রে তিন দলেরই পয়েন্ট সমান হয়ে যাবে। নানা সমীকরণ চলে আসবে সামনে। মোটকথা, বাংলাদেশকে জিততেই হবে ভারতের বিপক্ষে।

এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশসহ ৫টি দল। অন্য দেশগুলো আয়োজক ভারত, নেপাল, ভুটান আর শ্রীলঙ্কা। রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে হচ্ছে টুর্নামেন্টটি। পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল খেলবে ফাইনালে।