রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তনের জন্য ভোট ডাকাতির অবৈধ দখলদার স্বৈরশাসকের অবসান ঘটাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, এজন্য তাবেদার নির্বাচন কমিশন বাতিল করে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে হবে। এর জন্য দরকার বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য।




আজ শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকাস্থ ফেনী সমিতি মিলনায়াতনে জেএসডি’র কেন্দ্রীয় কাউন্সিল-২০১৯ এর কার্যাক্রমকে ত্বরান্বিত করার লক্ষে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গঠিত আঞ্চলিক টিম সমুহের নেতৃবৃন্দের এক যৌথ সভায় সভাপতির বক্তব্যদানকালে রব এসব কথা বলেন।




তিনি বলেন, ভোট ডাকাতির দখলদার সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ অবস্থান গ্রহণ করা আজ আমাদের প্রধান রাজনৈতিক দায়িত্ব। এজন্য দলকে সুসংগঠিত করার লক্ষে কেন্দ্র থেকে শুরু করে তৃণমুল পর্যন্ত বিভিন্ন ইউনিটের সম্মেলন, কাউন্সিল অনুষ্ঠান দলের প্রধান করণীয়।




রব বলেন, দেশে যে গুম, খুন, ধর্ষণ, লুটপাট, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অকার্যকারীতা, ব্যাংক লুট, রাজনৈতিক দমন পীড়ন চলছে এর বিরুদ্ধে ব্যাপক আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই। এ আন্দোলন হতে হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন ও দেশ শাসনে সর্বস্তরের জনগণের অংশীদারিত্ব প্রতিষ্ঠার চেতনার ভিত্তিতে, জেএসডি অনুসৃত ১০ দফা/১৪ দফার দিক নির্দেশনার ভিত্তিতে। বিশ্ব ও আঞ্চলিক রাজনীতিতে বর্তমানে যে উত্তেজনা চলছে তা অবসানের জন্যও ইতিবাচক কুটনৈতিক উদ্যোগ গ্রহণ অপরিহার্য।




রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকারের ব্যর্থ কুটনীতির বিপরীতে স্বার্থক কুটনীতির দ্বার উন্মোচন করতে হবে। আগামী কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে এ সকল বিষয়ে আমরা যুগোপযোগী সুনির্দিষ্ট দিক দর্শন নিয়ে আসবো।




সভায় বক্তব্য রাখেন-জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, এম এ গোফরান, মোঃ সিরাজ মিয়া, মিসেস তানিয়া রব, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, খোশ লেহাজ উদ্দিন খোকা, সাইদুর রহমান স্বপন, এ্যাড. আবদুর রহমান, সোহরাব হোসেন, ডাঃ জবিউল হোসেন, কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, এ্যাড. সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলাল, আহসান উদ্দিন চৌধুরী সুইট, মোশারফ হোসেন, এ্যাড. কাউছার নিয়াজী, মতিউর রহমান মতি, অধ্যাপক আমির উদ্দিন, মীর জিল্লুর রহমান, এ্যাড. তাজ উদ্দিন সবুজ, মোঃ শহীদ উল্যাহ, এ্যাড. আবু ইসহাক, সিরাজ উদ্দিন শিকদার, খন্দকার সদরুল আমিন হাবিব, সেলিম জামান চৌধুরী, মোজাম্মিল হক, শাহ জাহান সাজু, ফেরদৌস আলম খোকা, নুরুল ইসলাম মাল, অ্যাডভোকেট. মিয়া হোসেন প্রমুখ।