তার ছেলে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন খোকা বুধবার রাতে নিউইর্য়েকে পৌছেই ম্যানহাটনের স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টার হাসপাতালে যান বাবাকে দেখতে।ওই হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সাদেক হোসেন খোকা।অক্সিজেনের মাধ্যমে শ্বাস প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখা হয়েছে তার।ইশরাক ছাড়াও সেখানে রয়েছেন মা, এক ভাই ও বোন।




বাবাকে দেখে ইশরাক বলেন, অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হলেও দেশে ফেরার বিষয়ে সরকারের সঙ্গে কোনো সমঝোতা করবেন না তার বাবা।পরিবারের সদস্যদের কাছে একথা বলেছেন তার বাবা।খোকা দেশে ফেরার বিষয়ে ইশরাক বলেন খবরটি সঠিক নয়।বাবা আমাদের বলেছেন তোমরা তোমার বাবাকে নিয়ে গর্ব করতে পারবে।




সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করে অথবা ম্যাডামের নির্দেশ ছাড়া দেশে ফেরার কোনো পদক্ষেপ নেবে না।খোকার পরিবার তার আশু রোগমুক্তি কামনা করে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।এছাড়া বিএনপি শুক্রবার সাদেক হোসেন খোকার জন্য মিলাদ মাহফিল করবে।




গত সোমবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে খোকাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়।ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য ২০১৪ সালের ১৪মে সপরিবারে নিউইয়র্ক চলে যান তিনি।২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম এই সংগঠক অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন খোকা।




২৯ নভেম্বর ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা ১০ বছর বিএনপি ও আওয়ামী লীগের শাসনামলে ঢাকা মহানগরের মেয়র ছিলেন তিনি। বিএনপিতে বর্তমান কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান তিনি। ঢাকার মেয়র হয়ে তিনি রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক মুক্তিযোদ্ধাদের নামে নামকরণ করেন।




বিএনপির ক্ষমতায় থাকাকালে তিনি একাধিকবার মন্ত্রিসভার সদস্যও হন।রাজধানীর বনানী সুপার মার্কেটের কার পার্কিংয়ের ইজারা দুর্নীতির মামলায় সাদেক হোসেন খোকাসহ ৪ জনের ১০ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড হয়।




গত বছরের ২৮ নভেম্বর ঢাকা বিভাগীয় স্পেশাল জজ মিজানুর রহমান খান এ রায় ঘোষণা করেন।রায় ঘোষণার সময় খোকাসহ আসামিরা আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।রায় ঘোষণার পর আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।